Thursday, August 11, 2022
Homeবিজ্ঞানসহজ উপায়ে গরুর ওজন মাপার 1টি জাদুকরী পদ্ধতি

সহজ উপায়ে গরুর ওজন মাপার 1টি জাদুকরী পদ্ধতি

সহজ পদ্ধতিতে গরুর ওজন মাপার 1টি জাদুকরী পদ্ধতি

গরু কিনে ফেলার পর অনেকের মনে যে প্রশ্ন উঁকি ঝুঁকি মারে তা হল- কত কেজি মাংস হবে?
আপনাদের অনুসন্ধিৎসু মনের চাহিদা মেটাতে কয়েকটি সহজ সূত্র শিখিয়ে দিচ্ছি যা দিয়ে আপনি আনুমানিক হিসেব কষে বের করে ফেলতে পারেন গরুতে কত কেজি মাংস পাওয়া যেতে পারে

লাইভ ওয়েট বা ফিতা পদ্ধতিতে গরুর ওজন মাপার নিয়ম

পশুর লাইভ ওজন বের করার নিয়ম জানা থাকলে একজন খামারি ও ক্রেতা বুঝতে পারেন পশুর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে। গরুর লাইভ ওজন নির্ণয় করার পদ্ধতি।

লাইভ ওয়েট বা ফিতা পদ্ধতিতে গরুর ওজন মাপার প্রয়োজনীয় উপকরণ:

১. গজ বা ফিতা,

২. ক্যালকুলেটর।

এই দুইটা জিনিস থাকলেই আপনি বের করে নিতে পারবেন আপনার গরুটির আনুমানিক ওজন। গরুর ওজন মাপার জন্য আপনাকে কয়েকটি কাজ ধাপে ধাপে সম্পন্ন করতে হবে।

ফিতা দিয়ে গরুর ওজন মাপতে করনীয় কি কি?

ফিতা দিয়ে যে কোনো গরুর ওজন মাপতে একটা লম্বা ফিতা নিতে হবে। গরুকে সোজা করে দাড় করিয়ে সর্বপ্রথম গরুর লেজের গোড়া থেকে সিনা বরাবর সামনের পা এর কোটি এর হাড় পর্যন্ত দূরত্ব বা দৈর্ঘ্য কত ইঞ্চি সেটা মেপে নিতে হবে।

এর পর গরুর সামনের পা এর ঠিক পিছন দিয়ে পেট এর বেড় এর দৈর্ঘ্য কত ইঞ্চি তা মেপে নিতে হবে। অর্থাৎ গরুর ওজন বের করতে গরুর ২ স্থানের দৈর্ঘের মাপ নিতে হবে-

আরও পড়ুন  বিজ্ঞানের 25 আবিষ্কার এবং আবিষ্কারকের নাম

নিম্নে ফিতা বা স্কেল দিয়ে গরুর ওজন নির্ণয়ে যে দুই ধরণের মাপ নেওয়া প্রয়োজন গরুর শরীরে সেই মাপ নেওয়ার স্থান চিহ্নিত করে চিত্রাকারে দেখানো হলো-

গরুর ওজন মাপার সহজ নিয়ম

ফিতার সাহায্যে গরুর ওজন মাপের সুত্র:

১. দৈর্ঘ্য(ইঞ্চি) L X বুকের বেড়(ইঞ্চি) G X বুকের বেড় (ইঞ্চি)G / ৬৬০= গরুর ওজন (মোট)

অর্থাৎ

গরুর সমগ্র শরীরের ওজন=(গরুর সামনের পা থেকে পিছনের পা পর্যন্ত দূরত্ব × বুক বা পেটের বেড় × বুক বা পেটের বেড়) ÷ ৬৬০

ফিতার সাহায্যে গরুর ওজন মাপার একটি সহজ উদাহরণঃ

ধরুন আমার গরু লম্বা ৪৫ইঞ্চি এবং বুকের বেড় ৫০ইঞ্চি তাহলে গরুর ওজন (মোট)= ৪৫X৫০X৫০/৬৬০ = ১৭০.৪৫ কেজি,

বিঃদ্রঃ সবসময়ই দশমিকের পরের সংখ্যা বাদ দিয়ে দশমিকের আগের সংখ্যার সাথে ১ যোগ করা হবে

গরুর শরীরে মাংসের পরিমাণ নির্ণয়ের সূত্র ও পদ্ধতিঃ

উপরের সূত্র প্রয়োগ করে সর্বপ্রথম গরুর মোট শরীরের বা বডির ওজন মাপ করতে হবে। গরুর মোট শরীরের ওজন নির্ণয় করার পর নিচের সূত্র গুলো প্রয়োগ করে গরুর শরীরে থাকা ভূড়ি, গোবোর, চামড়া বাদে হাড় সহ গোস্ত বা মাংসের পরিমাণ নির্ণয় করা যাবে-

গরুর শরীরে মাংসের পরিমাণ =(গরুর মোট ওজন × ৫৫) ÷ ১০০

অর্থাৎ, গরুর মোট ওজনের ৫৫% মাংস থাকে।

সুত্র অনুযায়ী প্রাপ্ত মোট ওজনের ৫০ -৫৫ শতাংশ কেজি মাংস পাওয়া সম্ভব।

গাভির ক্ষেত্রে মাংস পাওয়া যাবে দৈহিক ওজনের ৪৫ শতাংশ। এবার সবাই গজ ফিতা নিয়ে হিসাব কসে বের করুন কত কেজি গরুতে কত কেজি মাংস।

এই সূত্রের মাধ্যমে ওজন নির্ধারণ সাধারণত ৯৫-১০০ ভাগই সঠিক হয়ে থাকে। তাই আপনি নিশ্চিন্তে এই সূত্র অনুসরণ করে পশুর ওজন নির্ধারণ করে ক্রয় করতে পারবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত দামে।

যদি আপনি নিজে ফিতা ধরে মাপতে গিয়ে ভয় বা সংকোচ করেন, সেক্ষেত্রে যারা গরুর বিক্রেতা তাদের দিয়েই ফিতার মাপটা আপনি দেখিয়ে নিতে পারবেন৷ যা আপনার জন্য সবচেয়ে নিরাপদ এবং সহজ হবে।

আরও পড়ুন  যদি মানুষ বানরের বিবর্তনের মাধ্যমে সৃষ্টি হয়, তাহলে সমস্ত বানর কেন মানুষ হলো না? Part 1

ফিতা দিয়ে বাছুর গরুর ওজন মাপার পিদ্ধতিঃ

পা, ভুড়ি, হাড়, মাংস সহ বাছুরের সমগ্র ওজন পরিমাপ করতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করতে হবে-

১. বাছুর কে সোজা করে দাড়াতে হবে।

২. বাছুরের সামনের পায়ের কোটি থেকে পিছনের পা কোটি বা লেজের গোড়া পর্যন্ত দৈর্ঘ্য কত ইঞ্চি তা ফিতা বা স্কেল দিয়ে মেপে লিখে রাখতে হবে।

৩. বাছুরের সামনের পায়ের ঠিক পিছন দিয়ে ফিতা ঢুকিয় বাছুরের পেট বা বুকের বেড়ের দৈর্ঘ্য কত ইঞ্চি তা মেপে লিখে রাখতে হবে।

৪. লিখে রাখা পরিমাপ সূত্রে বসিয়ে বাছুরের মো
নির্ণয় করতে হবে, সূত্রটি হলো- (সামনের ও পিছনের পায়ের কোটি দ্বয়ের মধ্যকার দূরত্ব x বুকের বেড়xবুকের বেড়) ÷ ৬৬০ = বাছুরের মোট ওজন।

৫. বাছুরের ওজন নির্ণয়ের সূত্র প্রয়োগ করতে ফিতায় ইঞ্চ তে পরিমাপ করতে হবে।

সহজ উপায়ে গরুর ওজন মাপার 1টি জাদুকরী পদ্ধতি

ফিতা দিয়ে গাভি গরুর ওজন মাপার পিদ্ধতিঃ

পা, ভুড়ি, হাড়, মাংস সহ বাছুরের সমগ্র ওজন পরিমাপ করতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করতে হবে-

১. গাভী কে সোজা করে দাড়াতে হবে।

২. গাভীর সামনের পায়ের কোটি থেকে পিছনের পা কোটি বা লেজের গোড়া পর্যন্ত দৈর্ঘ্য কত ইঞ্চি তা ফিতা বা স্কেল দিয়ে মেপে লিখে রাখতে হবে।

৩. গাভীর সামনের পায়ের ঠিক পিছন দিয়ে ফিতা ঢুকিয় বাছুরের পেট বা বুকের বেড়ের দৈর্ঘ্য কত ইঞ্চি তা মেপে লিখে রাখতে হবে।

৪. লিখে রাখা পরিমাপ সূত্রে বসিয়ে বাছুরের মো
নির্ণয় করতে হবে, সূত্রটি হলো- (সামনের ও পিছনের পায়ের কোটি দ্বয়ের মধ্যকার দূরত্ব x বুকের বেড়xবুকের বেড়) ÷ ৬৬০ = গাভীর মোট ওজন।

৫. গাভীর ওজন নির্ণয়ের সূত্র প্রয়োগ করতে ফিতায় ইঞ্চ তে পরিমাপ করতে হবে।

আশাকরি উপরোক্ত পদ্ধতি ও সূত্র গুলো অনুসরণ
করে আমরা সহজেই কোনো বাছুর, বকনা, গাভী, ষাঁড় বা যে কোনো গরুর ওজন দ্রুত বের করতে পারবো

আরও পড়ুন  যদি বিবর্তনের মাধ্যমে বর্তমান মানুষের সৃষ্টি হয় তবে মানুষ কি আস্তে আস্তে বিবর্তিত হচ্ছে? বিবর্তনের ব্যখ্যা পার্ট- 2
RELATED ARTICLES

Most Popular

Related articles